|

গঙ্গাচড়া হাটের জায়গায় ভূমি অফিস নির্মাণের প্রতিবাদে আলোচনা সভা

প্রকাশিতঃ 8:17 pm | June 11, 2019

গঙ্গাচড়া হাটের জায়গায় ভূমি অফিস নির্মাণের প্রতিবাদে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধিঃ গঙ্গাচড়া হাটের জায়গা বন্ধ করে ভূমি অফিস করার পরিকল্পনায় প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলার সচেতন নাগরিকদের আয়োজনে গত সোমবার রাতে উপজেলা বাজারের জিরো পয়েন্টে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ সাজু মিয়া।

উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক জাহেদুল ইসলামের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, বি.আর.ডিবির সাবেক চেয়ারম্যান, আওয়ামীলীগ নেতা ও তিস্তা সংবাদ পত্রিকার স্টাপ রিপোটার মাজহারুল ইসলাম লেবু, উপজেলা সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল খালেক মেম্বার, উপজেলা আওয়ামলীগের আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য মোস্তাফিজার রহমান মোস্তা, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ক্ষ্যান্ত রানী রায় প্রমুখ।

উপস্থিত বক্তারা বলেন গঙ্গাচড়া মডেল থানার সামনে গঙ্গাচড়া বাজারে শুধুমাত্র ৯৬ শতক জমির মধ্যে গড়ে উঠেছে তোহা বাজার। বর্তমান তোহা বাজার হিসেবে ব্যবহৃত ওই খাস জমি বিগত সময়ে একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন জমি ছিল।

প্রতিষ্ঠানটি গড়ে উঠেছিল ১৯১৭ সালে। যা ১৯৫৬ সালে তৎকালীন সরকারের নামে খাস খতিয়ানে রেকর্ড ভূক্ত হয়। সেখানে প্রায় ১০০ বছর থেকে হাটের দিন শনিবার ও বুধবার উপজেলার বাসিন্দারা কাঠের আসবাবপত্র, গরু ছাগল, হাঁস মুরগী, কবুতর ক্রয়-বিক্রয় করে।

এছাড়া কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ধান, পাট, তামাকসহ নানা জাতের ফলমূল বিক্রি করে আসছে। সম্প্রতি তোহা বাজারের ওই জায়গায় উপজেলা প্রশাসন উপজেলা ভূমি অফিস করার পরিকল্পনা নিলে। বিষয়টি জানাজানি হলে গঙ্গাচড়া হাটের তোহা বাজারের একমাত্র ওই জায়গাটি বন্ধ হওয়ার আশঙ্কায় উপজেলাবাসীর মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।

উপজেলার সচেতন নাগরিকরা বলেন ওই জায়গাটি বন্ধ হলে আমাদের ক্রয়-বিক্রয়ের আর কোন জায়গা থাকবে না। সরকার হাট থেকে প্রাপ্ত মোটা অংকের রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হবে। তাদের দাবী তোহা বাজারের ওই জায়গাটি বন্ধ না করে উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসের ভিতরে উপজেলা ভূমি অফিস স্থাপন করলে এক দিকে যেমন সরকার রাজস্ব পাবে, অন্য দিকে হাটে আসা সাধারণ জনগণের উৎপাদিত পন্য বিক্রয়ের জায়গা সংকট নিরসন হবে।