|

চাঁদপুরে ৮ শতাধিক মানুষের একমাত্র ভরসা ঝুঁকিপূর্ণ সাঁকো

প্রকাশিতঃ 5:15 pm | April 30, 2019

চাঁদপুরে ৮ শতাধিক মানুষের একমাত্র ভরসা ঝুঁকিপূর্ণ সাঁকো

মাসুদ হোসেন, চাঁদপুরঃ চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নে একটি ব্রীজের অভাবে ঝুঁকিপূর্ন সাঁকো দিয়ে চলাচলে চরম দুর্ভোগে রয়েছে এলাকাবাসী। ব্রীজ নির্মানে রাস্তার জন্য জমির অভাব ও জনপ্রতিনিধিরা এগিয়ে না আসায় হতাশা বিরাজ করছে চলাচলকারী জনগনের মাঝে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড মান্দারী গ্রামের বসু পাটওয়ারী বাড়ীর পূর্বপাশ দিয়ে প্রবাহিত শাহমাহমুদপুর বিশ্বখালের উপর একটি ঝুঁকিপূর্ণ বাঁশের সাঁকো অবস্থান করছে। যার উপর দিয়ে প্রতিদিন স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থী সহ এলাকাবাসী চলাচল করে।

ঐ এলাকার পাটওয়ারী বাড়ী, বৃহত্তর তালুকদার বাড়ী ও মিজি বাড়ীর প্রায় ৮শতাধিক লোকের যাতায়াতের জন্য এ সাঁকোটি। এলাকার জনপ্রতিনিধিরা বিভিন্ন সময় ব্রীজ করার প্রতিশ্রুতি দিলেও অধ্যবদি তার বাস্তবায়ন দেখা যায় নি। ফলে সমস্যা ও ঝুঁকি নিয়েই চলাচল করে এ এলাকার জনগন।

এ ব্যাপারে ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মুসা তালুকদার জানান, সাঁকোর পশ্চিম পাড়ের জমির মালিক সামনে রাস্তার জন্য জমি দিতে রাজী না থাকায় ব্রীজ করতে কেউ এগিয়ে আসতে পারেনি। জানা যায়, সাঁকোর সামনের জমি নিয়ে দুপক্ষের মাঝে মামলা চলে আসছে।

এ নিয়ে জানতে চাইলে ৮নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম মোল্লা বলেন, খালের পশ্চিম পাড়ে জমির মালিক রাস্তার জন্য জমি না দেওয়ায় এবং চলাচলকারী লোকজনের জমি পেতে যথাযথ তদারকি না থাকায় ব্রীজের জন্য ভালোভাবে চেষ্টা করা হয়নি। এছাড়া সামনের জমি নিয়ে দুপক্ষের মাঝে মামলা চলে আসছে।

ইউপি চেয়ারম্যান স্বপন মাহমুদ বলেন, এখানে ব্রীজ প্রয়োজন। কিন্তু সামান্য একটু জমি না দেওয়ায় ব্রীজ করা যাচ্ছে না। জমি সমস্যা সমাধান করে ভোক্তভোগিরা এগিয়ে আসলেই ব্রীজ করার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

লোকজন থেকে আরো জানা যায়, সামনের জমির মালিক জমি না দেওয়ায় বহু বছর যাবত কয়েক বাড়ীর শিশু থেকে বৃদ্ধ লোকজন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বিশ্বখালে উপর দিয়ে নির্মিত সাঁকো দিয়ে চলাচল করে আসছে। জমির সমস্যা নিরসন করে ব্রীজ নির্মান করতে এলাকার জনপ্রতিনিধিদের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ভোক্তভোগি জনগন।