|

ময়মনসিংহে রাত হলেই বসে জমজমাট জুয়ার আসর, প্রশাসন নিরব

প্রকাশিতঃ 9:00 pm | June 11, 2019

ময়মনসিংহে রাত হলেই বসে জমজমাট জুয়ার আসর, প্রশাসন নিরব

মোশাররফ হোসেন শুভ, ময়মনসিংহঃ ময়মনসিংহ সদর উপজেলার দাপুনিয়া, চুরখাই, দিগারকান্দা বাইপাস, আকুয়া, রহমতপুর, শম্ভুগঞ্জ, সাহেব কাচারী, চরখরিচা, পরানগঞ্জ, বোররচর, খাগডহরসহ উপজলার বিভিন্ন এলাকায় প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রতি রাতেই বসছে জমজমাট জুয়ার আসর।

এই জুয়ার আসরে প্রতি রাতে লক্ষ লক্ষ টাকার খেলা হয়। ফলে এসব এলাকায় বেড়েছে মাদক, ডাকাতি, ছিনতাই ও চোরের উৎপাত। নষ্ট পথে পা বাড়াচ্ছে উপজেলার আশেপাশের এলাকার যুব সমাজ। সেই সঙ্গে মাদকের আড্ডাও বেশ জমজমাট রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, এসব এলাকায় রাতে নিরব জুয়া খেলা হয়। ঝোপঝাড় আর জঙ্গলে ভরপুর, রাস্তা খারাপ, বৃষ্টির দিনে পুলিশের পিকাপ ঢোকেনা। তাই জুয়ারি, মাদকসেবী আর চোরের কাছে রাতের বেলায় নিরাপদ অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে।

কে বা কার নেতৃত্ব এই জুয়ার আসর চলে? এমন প্রশ্নের জবাবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়রা জানান, সদর উপজেলার দাপুনিয়া ঠেলাঠেলির বাজারে বিগোর বাঁশ তলা রমজান আলী ও আরিফ, সুহিলা বুধবাইরা বাজারের পাশে সাইফুলের দোকানের বিতর দিয়ে পিছনে আনার, দিগারকান্দা বাইপাস মোটর গ্যারেজের পিছনে একজন নাইটগার্ড চালায়, দাপুনিয়া বাজার কাটগুলাতে রমজান মেম্বার, উত্তর দাপুনিয়া, হারুন, স্বপন ও জহিরের নেতৃত্বে প্রতিরাতেই চলে এ জুয়ার আসর।

সহিলার সাইফুলের দোকানের পেছনের জুয়ার নেতৃত্বদেয়া আনোয়ার (আনার)এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পুলিশ ম্যানেজ করেই আমরা খেলা পরিচালনা করি। প্রতি সপ্তাহে কোতোয়ালী থানায় ৮ হাজার ও ডিবি অফিসে ৬ হাজার টাকাদেই। এবং আমাদের কাছে প্রশাসনের কাগজপত্র আছে।

প্রতিরাতেই লক্ষ লক্ষ টাকার খেলা হয়। গত দুই বছরে এই জুয়ার আসর চালানোর কল্যাণে প্রায় কোটি টাকার মালিক হয়েছে বেশ কয়েকজন। তবে প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে কেউ মুখ খুলছে না। রহস্যজনক কারণে স্থানীয় প্রশাসনও এ ব্যাপারে নির্বিকার। তাই ঐ এলাকাসহ তার আশেপাশের এলাকায়ও প্রতিনিয়ত হচ্ছে চুরি-ছিনতাই সহ নানান অপকর্ম।