|

মাদ্রাসা ছাত্র হত্যার অভিযোগে পলাতক মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

প্রকাশিতঃ 2:21 pm | June 12, 2019

মাদ্রাসা ছাত্র হত্যার অভিযোগে পলাতক মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

সোহেল রানা, শার্শা প্রতিনিধিঃ যশোরের শার্শায় শাহ পরান (১২) নামে মাদ্রাসা ছাত্র হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত পলাতক মাদ্রাসা শিক্ষক হাফিজুর রহমানকে আটক করেছে শার্শা থানা পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে খুলনা জেলার দিঘলিয়া আরাবিয়া কওমী মাদ্রাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।নিহত শাহ পরান উপজেলার কাগজপুকুর গ্রামের শাহাজান আলীর ছেলে।

আটক হাফিজুর যশোরের শার্শা উপজেলার গোগা গাজিপাড়া গ্রামের মুজিবর রহমান মোল্যার ছেলে। সে বেনাপোলের কাগজপুকুর খেদাপাড়া হিফজুল কোরআন মাদ্রাসা ও এতিমখানার শিক্ষক ও মসজিদের ইমাম।

শার্শা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এম মসিউর রহমান বলেন, ২জুন রোববার সন্ধায় যশোরের শার্শা উপজেলার কাগজপুকুর খেদাপাড়া হিফজুল কোরআন মাদ্রাসা ও এতিমখানার শিক্ষক হাফিজুর রহমানের গ্রামের বাড়ির ঘরের খাটের নিচে থেকে শাহ-পরান নামের এক মাদ্রাসা ছাত্রের অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করা হয় ।

ঘটনার পর থেকে হাফিজুর রহমান পলাতক ছিল। গোপন সংবাদ পেয়ে মঙ্গলবার রাতে খুলনা জেলার দিঘলিয়া আরাবিয়া কওমী মাদ্রাসা থেকে হাফিজুরকে আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার সাথে যুক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

তিনি আরও বলেন, রোজার মধ্যে তারাবি নামাজ শেষে মাদ্রাসায় নিজ কক্ষে ওই শিশুকে হাফিজুর ‘মাথা টিপে’ দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে যায়।পরে জোর পূর্বক তাকে বলাৎকারের চেষ্টায় ব্যার্থ হয়ে পরদিন কৌশলে বুঝিয়ে তাকে নিজ বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে নির্যাতন করে নির্মমভাবে হত্যা করে লাশ খাটের নিচে লুকিয়ে রেখে আত্নগোপনে যায় ।
আজ বুধবার দুপুরে আটক হাফিজুরকে যশোর আদালতে পাঠানো হয়েছে।