|

গঙ্গাচড়ায় গৃহবধু নির্যাতনে গ্রেফতার ৪

প্রকাশিতঃ ৩:৫৯ অপরাহ্ন | অগাস্ট ১০, ২০১৯

গ্রেফতার-atok-আটক

গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধিঃ গঙ্গাচড়ায় গাছে বেঁধে মারপিট, চুল কেটে ও জুতার মালা পড়িয়ে নারীকে নির্যাতনের ঘটনায় চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রংপুরের গঙ্গাচড়ায় দেবরের মেয়ের সংসার ভেঙ্গে দেওয়ার অপবাদ দিয়ে এক গৃহবধুকে গাছের সঙ্গে বেঁধে শারীরিক নির্যাতনের পর মাথার চুল কেটে ও গলায় জুতার মালা গলায় পড়িয়ে নির্যাতন চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার উপজেলার বেতগাড়ী ইউনিয়নের সাতআনী শেরপুর ছিট মহল গ্রামে। গত বৃহস্পতিবার ছয়জনকে আসামী করে থানায় মামলা হলে ওই রাতেই পুলিশ দুইজনকে গ্রেফতার করে।

নির্যাতনের শিকার গৃহবধু মানিকা বেগম (৩৮) গঙ্গাচড়ার কাদেরের স্ত্রী। তিনি গঙ্গাচড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। এর আগে মানিকা বেগমের দেবর আব্দুল মতিন ও আব্দুল মোতালেবকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গত শুক্রবার রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আরো দুইজনকে গ্রেফতার করে। তারা হলেন মানিকা বেগমের শ্বশুর আব্দুল মতিন ও ভাতিজি মৌসুমী বেগম।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি মানিকা বেগমের দেবর আব্দুল মতিনের মেয়ের সাথে রংপুর সদর উপজেলার এক যুবকের বিয়ে হয়। বিয়ের প্রায় দেড় মাসের মাথায় বিভিন্ন অভিযোগ এনে ওই মেয়েকে তালাক দেয় তার স্বামী। তালাকের ঘটনায় মানিকা বেগমের ইন্ধন রয়েছে বলে আব্দুল মতিনের পরিবার এমন অভিযোগ তোলায় দুই পরিবারের মধ্যে কয়েকদিন বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে বুধবার বিকালে আব্দুল মতিনসহ তার পরিবারের লোকজন একজোট হয়ে মানিকা বেগমকে গাছের সাথে বেঁধে বেধড়ক মারপিট করেন। এক পর্যায়ে তার মাথার চুল কেটে গলায় জুতার মালা পড়িয়ে দেওয়া হয়।

বিকেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম তাকে উদ্ধার করে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মানিকার স্বামী আব্দুল কাদের বাদী হয়ে ছয়জনকে আসামী করে গঙ্গাচড়া মডেল থানায় মামলা করেন।

এ ব্যাপারে বেতগাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান লিপ্টন বলেন, বিষয়টি দুঃখজনক। ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা পরস্পর ভাই, দেবর, ভাবী, ভাতিজি সম্পর্কের। তাই এ নিয়ে আমি কোন মন্তব্য করতে চাই না।

গঙ্গাচড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মশিউর রহমান বলেন, এ পর্যান্ত চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আদালতে আবেদন করা হয়েছে। পলাতক আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

দেখা হয়েছে: 74
সর্বাধিক পঠিত
ফেইচবুকে আমরা

  • উপদেষ্টা সম্পাদকঃ আফজাল হোসেন হিমেল মোবাইল ০১৬১১-৫১৫৩২০
  • সম্পাদকঃ আরিফ আহমেদ
  • ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ ফয়সাল হাওলাদার মোবাইল ০১৭৩২-৩৭৯৯৮২
  • সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী মোবাইল ০১৯১৬-৯১৭৫৬৪
  • প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি মোবাইল ০১৯১৬-২২৩৩৫৬
  • নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া মোবাইল ০১৭১৮-৯৭১৩৬০
  • অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
  • বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
  • ই-মেইলঃ aporadhbartamofosal@gmail.com
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।