|

গঙ্গাচড়া প্রেসক্লাব যুগ্ন সম্পাদক বাপ্পীর অকাল মৃত্যু

প্রকাশিতঃ ৭:০৯ অপরাহ্ন | জানুয়ারী ১২, ২০১৯

গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধি:
রংপুরের গঙ্গাচড়া প্রেসক্লাবের যুগ্ন সম্পাদক ও দৈনিক যুগান্তর এবং প্রথম খবর প্রতিনিধি সাংবাদিক ইউসুফ আলী বাপ্পী আর নেই। ভারতের দিল্লীর এ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শনিবার সকাল ১০ টায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করে।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৩৩ বছর। বাপ্পীর অকাল মৃত্যুতে গঙ্গাচড়ায় সাংবাদিক সমাজসহ বিভিন্ন মহলে শোঁকের ছাঁয়া নেমে এসেছে।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক বাপ্পী দীর্ঘদিন ধরে কিডনি সমস্যা ভুগছিল। তার দুটি কিডনি নষ্ট হয়ে যাওয়ায় ভারতের দিল্লীতে এ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহন করে। সেখানে ১ মাস চিকিৎসা গ্রহনের পর তার চাচার একটি কিডনি বাপ্পীর শরীরে স্থাপন করা হয়।

কিডনি স্থাপনের ১ মাস চিকিৎসা শেষে একটু সুস্থ্য হয়ে বাড়িতে ফিরে আসে। বাড়িতে প্রায় দু-মাস অবস্থানের পর বাপ্পী অসুস্থ্য বোধ করলে পুনরায় ভারতের দিল্লীর এ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য যায়। সেখানে প্রায় ১ মাস চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করে।

বাপ্পী সাংবাদিকতার পাশাপাশি ঠিকাদারী করতো। আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত ছিল। তার বাড়ি গঙ্গাচড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সামনে। ব্যাক্তিগত জীবনে বাপ্পী অবিবাহিত। বাবা জাহাঙ্গীর হোসেনের একমাত্র পুত্র। মুত্যুকালে বাপ্পী পিতা-মাতা, বোন, আত্বীয়স্বজন ও অসখ্য শুভাকাংখী রেখে গেছে। তার মৃত্যুতে গঙ্গাচড়া সাংবাদিক সমাজ ৭ দিনের শোক প্রকাশ করেছে।

শোক প্রকাশের মধ্যে রয়েছে, কালো ব্যাচ ধারণ, দো’য়া ও মিলাদ মাহফিল। এছাড়া বাপ্পীর মৃত্যুতে শোক ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছে, সাংবাদিক সমজা, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিগণ।

দেখা হয়েছে: 6
সর্বাধিক পঠিত
ফেইচবুকে আমরা

  • উপদেষ্টা সম্পাদকঃ আফজাল হোসেন হিমেল মোবাইল ০১৬১১-৫১৫৩২০
  • সম্পাদকঃ আরিফ আহমেদ
  • ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ ফয়সাল হাওলাদার মোবাইল ০১৭৩২-৩৭৯৯৮২
  • সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী মোবাইল ০১৯১৬-৯১৭৫৬৪
  • প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি মোবাইল ০১৯১৬-২২৩৩৫৬
  • নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া মোবাইল ০১৭১৮-৯৭১৩৬০
  • অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
  • বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
  • ই-মেইলঃ aporadhbartamofosal@gmail.com
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।