|

মুসলিম মেয়েদের প্রকাশ্যে গণধর্ষণ করতে বললেন সুনীতা সিং

প্রকাশিতঃ ৫:০৯ অপরাহ্ন | জুলাই ০১, ২০১৯

মুসলিম মেয়েদের প্রকাশ্যে গণধর্ষণ করতে বললেন সুনীতা সিং

অনলাইন বার্তাঃ ‘হিন্দু ভাইদের উচিত ১০ জন করে একেকটি দল তৈরি করা, যাদের কাজ হবে মুসলিম মা-বোনদের রাস্তায় ফেলে প্রকাশ্যে গণধর্ষণ করা।’ এভাবেই উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের উসকে দিচ্ছেন বিজেপি নেত্রী সুনীতা সিং গৌড়। এ বিষয়ে মুসলিম সম্প্রদায়ের নেতারা বলছেন, ভারতকে সাম্প্রদায়িক করে তোলা হচ্ছে। নষ্ট করা হচ্ছে শান্তি।

সুনীতা সিং গৌড় উত্তরপ্রদেশের রামকোলার বিজেপি মহিলা মোর্চার নেত্রী। তিনি শুক্রবার নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এই ধরনের পোস্ট দেন।

সেখানে এই নেত্রী লেখেন, ‘মুসলিমদের বিষয়ে একটাই সমাধান রয়েছে। হিন্দু ভাইয়েদের উচিত মুসলিম মা ও বোনেদের প্রকাশ্য রাস্তায় গণধর্ষণ করা। এরপর সবাইকে দেখানোর জন্য তাদেরকে বাজারের মাঝখানে ঝুলিয়ে রাখা।’

এখানেই শেষ নয় বিজেপির ওই নেত্রীর উগ্রবাদী কথা। তিনি আরো বলেন, ‘মুসলিম মা ও বোনেদের উচিত নিজেদের সম্ভ্রম লুঠ করতে দেওয়া। কারণ দেশকে রক্ষা করতে এছাড়া আর অন্য কোনও উপায় নেই।’

এদিকে ফেসবুকে এই পোস্টটি করার পরই তা ভাইরাল হয়ে যায়। ওই নেত্রীর সমালোচনায় মুখর হয়েছেন ভারতীয়রা। শেষপর্যন্ত প্রবল চাপের মুখে তাকে দলীয় পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছে বিজেপি।

বিজেপি মহিলা মোর্চার জাতীয় সভানেত্রী বিজয় রাহাতকর বলেন, ‘ বিজেপি এ ধরনের ঘৃণ্য মন্তব্যকে কখনো সহ্য করবে না। যারা এমন করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমরা ইতোমধ্যে ওই নারীকে দল থেকে বহিষ্কার করেছি।’

বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকে ভারত জুড়ে মুসলিমদের ওপর নির্যাতনের মাত্রা ভয়াবহ আকার নিয়েছে। কারণে-অকারণে চলছে নির্যাতন। কথিত গো-রক্ষার নামে হত্যা করা হচ্ছে মুসলিমদের। এর জন্য হিন্দু উগ্রবাদী সংগঠনকে দায়ী করছে বিভিন্ন মানবাধীকার সংস্থা।

দেখা হয়েছে: 125
সর্বাধিক পঠিত
ফেইচবুকে আমরা

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন
  • উপদেষ্টা সম্পাদকঃ আফজাল হোসেন হিমেল
  • সম্পাদকঃ আরিফ আহমেদ
  • সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী মোবাইল ০১৯১৬-৯১৭৫৬৪
  • প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি মোবাইল ০১৯১৬-২২৩৩৫৬
  • নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া মোবাইল ০১৭১৮-৯৭১৩৬০
  • অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
  • বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
  • ই-মেইলঃ aporadhbartamofosal@gmail.com
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।