|

যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে মামলা করায় প্রাণ নাশের হুমকিতে বাদী

প্রকাশিতঃ ৪:২৯ অপরাহ্ন | নভেম্বর ০৫, ২০১৯

প্রাননাশের হুমকি

মোশাররফ হোসেন শুভ: ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার গয়েশপুর এলাকায় যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে ময়মনসিংহ বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়া ম্যাজিষ্ট্রেট নান্দাইল আমলী আদালতে মামলা করায় শাহাব উদ্দিনের পরিবারকে প্রতিনিয়ত প্রাণ নাশের হুমকির দিয়ে আসছেন রাজাকার কমান্ডার খন্দকার মোহাম্মদসহ আরো ৬ জন আসামী।

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার গয়েশপুর এলাকার শাহাব উদ্দিন বাদী হয়ে রাজাকার কমান্ডার খন্দকার মোহাম্মদ, সৈয়দ মিয়া, মতিউর রহমান, হাবিবুর রহমান, ফারুখ, মওলু মিয়া, হান্নানের বিরুদ্ধে ময়মনসিংহ বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট নান্দাইল আমলী আদালতে ৬৭৯/১৭ইং মামলা দ্বায়ের করেন।

মামলায় উল্লেখ করেন ১৯৭১ সালের ২৬শে মার্চ হইতে ১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১ সময়ের মধ্যে রাজাকার বাহিনীতে যোগ দিয়ে সহযোগী রাজাকারদের সাথে নিয়ে এলাকায় স্বাধীনতার পক্ষের লোকজনকে হত্যা করে। বাড়ী ঘর টাকা পয়সা স্বর্ণালংকার, গরু ছাগল লুট করে।

শহীদ রইজ উদ্দিন স্বাধীনতার পক্ষে কথা বলায় ও মুক্তিযুদ্ধাদের আশ্রয় দেয়ায় আক্রোশে রইজ উদ্দিন হাল চাষ করা অবস্থায় রাজাকার কমান্ডার খন্দকার মোহাম্মদ সহ সহযোগীদের নিয়ে রইজ উদ্দিনকে হত্যা করে। পরে রইজ উদ্দিনের মাকে জসিম উদ্দিনের বাড়ী থেকে ধরে নিয়ে তাকেও হত্যা করে লাশ গুম করে।

তার কিছু দিন পর শহীদ শামছদ্দিন ও নঈম উদ্দিন এর মা ও সহোদর ভাইয়ের রাজাকার কর্তৃক খুন হয়েছে শুনে প্রাণ রক্ষার জন্য মিছরীপুর গ্রামে সহোদর বোনের স্বামী কেরামত আলীর বাড়ীতে আত্মগোপন করলে সেখানে রাজাকার কমান্ডার খন্দকার মোহাম্মদ তার সহযোগিদের নিয়ে মিছরীপুর গ্রামে আক্রমন করে কেরামত আলীর বাড়ী থেকে ধরে নিয়ে বারিগ্রামে অবস্থিত রাজাকার ক্যাম্পে গুলি করে হত্যা করে লাশ বারিগ্রাম মাদ্রাসার পিছনে ইটাখলায় চুলার মধ্যে ফেলে রাখে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর মুক্তিবাহীনীর সদস্যরা ইটখলার চুলার গর্ত থেকে মরদেহ উদ্ধার করে। বাদী শাহাব উদ্দিন, শহীদ সামছুদ্দিন ও চাচা শহীদ নঈম উদ্দিনকে সনাক্ত করে।

২০১৭ইং সনে মামলা করলেও আজও  কোন তারিখ হয়নি। মানবতা বিরোধী অপরাধ আইনের ৩(২) ১৯৭৩ ধারার বিধানমতে মামলা আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনালে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য দাবী জানান বাদীসহ গয়েশপুর এলাকাবাসী।

দেখা হয়েছে: 85
সর্বাধিক পঠিত
ফেইচবুকে আমরা

  • উপদেষ্টা সম্পাদকঃ আফজাল হোসেন হিমেল
  • সম্পাদকঃ আরিফ আহমেদ
  • সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী মোবাইল ০১৯১৬-৯১৭৫৬৪
  • প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি মোবাইল ০১৯১৬-২২৩৩৫৬
  • নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া মোবাইল ০১৭১৮-৯৭১৩৬০
  • অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
  • বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
  • ই-মেইলঃ [email protected]
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।