রাজশাহীতে হাইব্রিড জাতের টমেটো বাজারে’দাম পেয়ে খুশি কৃষক

নাজিম হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহীতে উঠতে শুরু করেছে আগাম জাতের শীতকালীন হাইব্রিড জাতের টমেটো। টমেটো বাজারে ব্যাপক চাহিদা থাকায় টমেটোর ভালো দাম পেয়ে খুশি এলাকার কৃষকরা। বর্তমানে মণপ্রতি কাঁচা টমেটো দুই হাজার ২‘শ টাকা থেকে ২ হাজার ৬‘শ টাকা দরে পাইকারি বিক্রি হচ্ছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সারাদেশে উৎপাদিত বঙ্গবীর,ভিএল ৬৪২, ইউএসএ এবং নসিব নামীয় শীতকালীন টমেটোর প্রথম উৎপাদন হয় রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলাতে।

এছাড়া জেলাজুড়ে চলতি মৌসুমে ৬ হাজার মেট্রিকটন টমেটো উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রাণ কোম্পানি ২ হাজার মেট্রিকটন টমেটো ক্রয় করবে। এতে করে কৃষকেরা তাদের উৎপাদিত টমেটোর ন্যায্যমূল্য পাবে।

জেলার পবা গ্রামের টমেটো চাষী আব্দুর রউফ জানান,গত মাসের প্রথম দিকে জমি থেকে প্রথম টমেটো উঠতে শুরু করে। সে সময় মণপ্রতি কাঁচা টমেটো ২ হাজার টাকা দরে বিক্রি হয়েছিল। কিন্তু দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে টমেটোর পাইকার আসা শুরু করলে হঠাৎ করেই গত সোমবার থেকে টমেটোর দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।

বর্তমানে মণপ্রতি কাঁচা টমেটো দুই হাজার ২‘শ টাকা থেকে ২ হাজার ৬‘শ টাকা দরে পাইকারি বিক্রি হচ্ছে। এবং প্রতি বিঘা জমিতে প্রায় ২০ হাজার টাকা খরচ করে তিনি তিন বিঘা জমিতে টমেটো চাষ করেছেন। গত সপ্তাহে তার তিন বিঘা জমি থেকে প্রথম দফায় সাড়ে তিন মণ টমেটো উঠেছে। প্রতি মণ ২ হাজার ৬‘শ টাকা দরে বিক্রি করেছেন। পরবর্তীতে আরো বেশি পরিমাণে টমেটো উঠবে। কিন্তু প্রথম দিকেই টমেটোর দাম দেখে হতাশায় ভুগছিলেন তিনি। কিন্তু হঠাৎ করে দাম বেড়ে যাওয়ায় খুশি এই কৃষক।

এছাড়াও তিনি জানান, জমিতে এখনো টমেটো পাকেনি। কাঁচা টমেটো তুলেই পাইকারী বিক্রি করছেন কৃষকরা। আর পাইকারী ক্রেতারা কাঁচা টমেটো কিনে তা পাকিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাচ্ছেন। দেশের রাজনৈতিক অবস্থা ভাল থাকায় এবং বিভিন্ন জেলার পাইকাররা আসার কারণে এবার টমেটোর দাম বেশি পাচ্ছে কৃষকরা।

সোমবার জানতে চাইলে ঢাকা থেকে টমেটো কিনতে আসা আকবর রহমান ও মনির উদ্দিন নামের দুই পাইকারী ক্রেতা বলেন, এবারের মৌসুমটাই খুব ভালো। প্রথমে ২ হাজার টাকা দরে কাঁচা টমেটো কিনে সেগুলো পাকিয়ে ঢাকায় বিক্রি করে ভালো লাভ হওয়ায় বেশি দামে টমেটো ক্রয় করছে তারা।

উল্লেখ্য,গোদাগাড়ী উপজেলায় এবার সালামত,নসিব,ভিএল-৬৪২-বিজলী,বঙ্গবীর,বিউটিসহ বিভিন্ন নামীয় টমেটোর চাষ হয়েছে। এইবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় টমেটোর গাছ ও ফুল ভালো রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *