|

ময়মনসিংহে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে র‍্যালি ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা

প্রকাশিতঃ 7:32 pm | March 17, 2019

ময়মনসিংহে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে র‍্যালি ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা

মোঃ কামাল, ময়মনসিংহঃ ময়মনসিংহে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবর রহমানের ৯৯তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে জেলা ছাত্রলীগের বিশাল আনন্দ র‌্যালি ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। র‍্যালির নেতৃত্ব দেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সরকার মো. সব্যসাচী। এতে সহস্রাধিক ছাত্রলীগের নেতাকর্মীর অংশগ্রহণ করে।

রবিবার (১৭ মার্চ) বিকেলে নগরীর ছায়াবানী সিনেমা হলের সামনে থেকে ছাত্রলীগের র‍্যালিটি বের হয়ে নগরীর প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে রেলওয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্ত্বরে মহানগর আওয়ামী লীগের সমাবেশ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

পরে সমাবেশ শেষে মহানগর আওয়ামী লীগের একটি বিশাল র‌্যালি বের হয়ে নগরীর বিভিন পয়েন্ট প্রদক্ষিণ করে টাউন হল প্রাঙ্গন গিয়ে শেষ হয়।

এ সময় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এহতেশামুল আলম, সহ-সভাপতি গোলাম রহমান জিল্লু, সাধারণ সম্পাদক মুহিত উর রহমান শান্ত, জেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক এড. আজহারুল ইসলাম, মহানগর আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক আহ্বায়ক ভিপি রাসেল পাঠান, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সরকার মো. সব্যসাচী, সাবেক শহর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক রাফিউর রাজ্জাক উষান প্রমুখ।

ময়মনসিংহে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে র‍্যালি ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা



অন্যদিকে সকালে ডাঃ শুভ উচ্চ বিদ্যালয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবর রহমানের ৯৯ তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগীতায় শতাধিক কোমলমতী শিশুদেরকে নিয়ে অনুষ্ঠানটি উদযাপিত হয়। এতে উদ্বোধক ছিলেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিত-উর রহমান শান্ত। অনুষ্ঠানটি সার্বিক সহযোগীতা করেন ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সরকার মো. সাব্যসাচী।

ময়মনসিংহে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে র‍্যালি ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা



এ সময় সব্যসাচী বলেন, ‘স্কুলের শতাধিক কোমলমতি শিশুদেরকে নিয়ে এই আয়োজনটি সত্যিই সকলের নজর কেড়েছে। আগামী প্রজন্মের শিশুরা জাতির জনকের জীবনী, আদর্শ ও ইতিহাস মনে রাখবে। তাই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু জীবন নিয়ে চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়। প্রায় ২ ঘন্টাব্যাপী মনোমুগ্ধকর অনুষ্ঠানটি স্কুল শিক্ষার্থীরা উপভোগ করেন। তবে এই ধরনের আয়োজন হলে আগামী প্রজন্মের শিশুরা জানতে পারবে বঙ্গবন্ধুর আসল ইতিহাস।’