|

লক্ষ্মীপুরে কলেজছাত্রী ধর্ষণ ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে

প্রকাশিতঃ ১২:০৮ পূর্বাহ্ন | জুলাই ২৬, ২০১৯

লক্ষ্মীপুরে কলেজছাত্রী ধর্ষণ ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুরে কলেজ ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সুদীপ্ত পালকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) বিকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এরআগে দুপুরে ছাত্রীর বাবা (হিন্দু সম্প্রদায়ের পুরোহিত) বাদী হয়ে এ মামলা করেন।

সুদীপ্ত পাল হিন্দু বৌদ্ধ খিষ্ট্রান ছাত্র ঐক্য পরিষদের লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা সভাপতি ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক।

থানা পুলিশ জানায়, সদরের ভবানীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী ও তার পরিবার শহরের টাউন হল এলাকায় ২০১৬ সাল থেকে ভাড়া থাকতেন।

ওই ঘরের মালিক কমল ও তার ছেলে সুদীপ্ত পাশাপাশি তাদের অন্য একটি বাসায় থাকতেন। এ সুবাদে সুদীপ্তের সঙ্গে ওই ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিভিন্নস্থানে ঘুরতে যায় তারা। ২০১৭ সালে জানুয়ারিতে প্রথম দিকে মদিন উল্যা হাউজিংয়ের একটি বাসায় বন্ধুর জম্মদিনে ছাত্রীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ করে সুদীপ্ত।

সবশেষ ৫ জুলাই ভয়ভীতি দেখিয়ে শহরের একটি বাসায় তাকে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়। এক পর্যায়ে ছাত্রী অতিষ্ঠ থেকে পরিবার ঘটনাটি জানায়। সম্প্রতি কুমিল্লায় ওই ছাত্রীর বিয়ের কথাবার্তা চূড়ান্ত করা হয়। এ খবর পেয়ে সুদীপ্ত মুঠোফোনে ওই পাত্রকে হুমকি দেয়। একই সঙ্গে আপত্তিকর ভিডিও পাঠালে বিয়ে ভেঙ্গে যায়।

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ওসি এ কে এম আজিজুর রহমান মিয়া জানান, ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় মামলা নেয়া হয়েছে। বাঞ্চানগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে মামলার আসামিকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

দেখা হয়েছে: 164
সর্বাধিক পঠিত
ফেইচবুকে আমরা

  • উপদেষ্টা সম্পাদকঃ আফজাল হোসেন হিমেল মোবাইল ০১৬১১-৫১৫৩২০
  • সম্পাদকঃ আরিফ আহমেদ
  • ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ ফয়সাল হাওলাদার মোবাইল ০১৭৩২-৩৭৯৯৮২
  • সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী মোবাইল ০১৯১৬-৯১৭৫৬৪
  • প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি মোবাইল ০১৯১৬-২২৩৩৫৬
  • নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া মোবাইল ০১৭১৮-৯৭১৩৬০
  • অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
  • বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
  • ই-মেইলঃ aporadhbartamofosal@gmail.com
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।