|

লক্ষ্মীপুরে ঘুমন্ত বাবা-মা’র পাশ থেকে শিশু অপহরণ, মুক্তিপণ চাইছে দূর্বৃত্তরা

প্রকাশিতঃ ১:৩৭ অপরাহ্ন | অগাস্ট ০৫, ২০১৯

লক্ষ্মীপুরে ঘুমন্ত বাবা-মা’র পাশ থেকে শিশু অপহরণ, মুক্তিপণ চাইছে দূর্বৃত্তরা

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুরে দেড় বছরের এক শিশুকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন তার মা-বাবা। হঠাৎ রাতে ঘুম ভেঙে গেলে মা দেখেন শিশুটি তার পাশে নেই। আলো জ্বালিয়ে ঘুমালেও পরে বন্ধ দেখা যায়। দোচালা টিনের ঘরের দরজাটিও খোলা। তার ব্যবহৃত মোবাইলফোন সেটটিও নেই।

এদিকে ওই মোবাইল সেটের নাম্বার থেকে শিশুর বাবার কাছে কল আসে। তখন শিশুটিকে ছেড়ে দিতে মোবাইলের অপর পাশ থেকে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ চায় দূর্বৃত্তরা।

অন্যদিকে শিশুটি না পেয়ে তার মা হাউমাউ করে কাঁদছেন। চারপাশে খুঁজছেন তার আদরের সন্তানকে। কিন্তু খুঁজে পাচ্ছে না। আত্মীয়-স্বজনদেরকে জড়িয়ে ধরে তার সন্তানকে ফিরিয়ে আনার জন্য আকুতি জানাচ্ছে। কান্না করতে করতে একপর্যায়ে তিনি অচেতন হয়ে পড়েন। শিশুটির বাবাও চারপাশে তাকে খুঁজে বেড়াচ্ছে।

রোববার (৪ আগস্ট) গভীর রাতে সদর উপজেলার লাহারকান্দি ইউনিয়নের লাহারকান্দি গ্রামের এলাহি বক্স মাঝি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। দূর্বৃত্তরা রাতে কৌশলে দরজা খুলে ওই বাড়ির দম্পতি মামুন হোসেন ও কহিনূর আক্তারের ঘরে ঢুকে তাদের ছোট্ট শিশু মিনহাজকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় পুলিশ শিশুর চাচা মাহবুবকে সন্দেহভাজন আটক করে থানায় নিয়ে গেছে।

খবর পেয়ে সোমবার (৫ আগস্ট) সকালে ওই বাড়িতে লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশ সুপার ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আনোয়ার হোসেন, সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম আজিজুর রহমান মিয়া ও লাহারকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন মুশু পাটয়ারী পরিদর্শন করেন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের মতো শিশু মিনহাজকে নিয়ে রাজমিস্ত্রী মামুন ও তার স্ত্রী কহিনুর ঘরের দরজা বন্ধ করে ঘুমিয়ে পড়ে। হঠাৎ রাত তিনটার দিকে ঘুম ভাঙলে দেখে তাদের সন্তান পাশে নেই। ঘরের দরজা খোলা। জালানো বৈদ্যুতিক বাল্ব বন্ধ ছিল। পরে তারা আশপাশ এলাকায় খোঁজ-খবর নিয়েও মিনহাজের সন্ধান পাননি। সোমবার দুপুর ১২ পর্যন্ত ওই শিশুর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি।

ওই শিশুর বাবা মামুন হোসেন বলেন, আমার ছেলেটিকে খুজে পাচ্ছি না। কে বা কারা তাকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে। একইসময় আমার স্ত্রীর মোবাইল ফোনটিও নিয়ে যায়। ওই মোবাইল নাম্বার থেকে আমার ছেলেকে ছেড়ে দেবে বলে ৫ লাখ টাকা দাবি করে অপহরণকারীরা। তবে তাদের পরিচয় দেয়নি।

পরিদর্শন শেষে লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশ সুপার ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল গিয়েছি। এটি চুরি নাকি অপহরণ তা বলা যাচ্ছে না। তদন্তের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে। ঘটনাটি গুরুত্বের সহকারে দেখা হচ্ছে। রহস্যটি দ্রুত উদঘাটন করা হবে।

দেখা হয়েছে: 139
সর্বাধিক পঠিত
ফেইচবুকে আমরা

  • উপদেষ্টা সম্পাদকঃ আফজাল হোসেন হিমেল মোবাইল ০১৬১১-৫১৫৩২০
  • সম্পাদকঃ আরিফ আহমেদ
  • ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ ফয়সাল হাওলাদার মোবাইল ০১৭৩২-৩৭৯৯৮২
  • সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী মোবাইল ০১৯১৬-৯১৭৫৬৪
  • প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি মোবাইল ০১৯১৬-২২৩৩৫৬
  • নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া মোবাইল ০১৭১৮-৯৭১৩৬০
  • অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
  • বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
  • ই-মেইলঃ aporadhbartamofosal@gmail.com
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।