|

শিবচরে স্কুল ছাত্রীকে গণধর্ষণ শেষে হত্যা, থানায় মামলা আটক ৩

প্রকাশিতঃ ৭:২৫ অপরাহ্ন | মে ০৬, ২০১৯

শিবচরে স্কুল ছাত্রীকে গণধর্ষণ শেষে হত্যা, থানায় মামলা আটক ৩

সাব্বির হোসাইন আজিজ, মাদারীপুরঃ মাদারীপুরের শিবচরে এক স্কুল ছাত্রীকে গণধর্ষণ শেষে হত্যার অভিযোগে শিবচর থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে। মামলায় হোটেল কর্মচারীসহ ৩ জনকে আসামী করা হয়েছে।

এই ঘটনায় রবিবার রাতে শিবচরের উৎসব একাত্তর নামে একটি আবাসিক হোটেল থেকে ইন্নি আক্তার নামে এক স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমাবার মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিহতের ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়েছে।

এ ঘটনায় মূল অভিযুক্ত প্রেমিক রুবেল খান ও হোটেলের ২ কর্মচারীকে আটক করেছে পুলিশ। রুবেল শিবচর কাঁঠালবাড়ি ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকার তোতা খানের ছেলে। গণধর্ষণে নিহত কিশোরী পৌর এলাকার শেখ ফজিলাতুন নেছা বালিকা বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী।

এই ঘটনায় মাদারীপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সোমবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার সুব্রত কুমার হালদার জানান, রবিবার স্বামী স্ত্রী পরিচয়ে উৎসব একাত্তর হোটেলে কক্ষ ভাড়া নেয় রুবেল খান। এসময় বিকৃত যৌনাচারে লিপ্ত হয় রুবেল। এক পর্যায়ে রক্তাক্ত অবস্থায় কিশোরীকে ফেলে পালিয়ে যায় রুবেল।

পরে পুলিশ হোটেল কক্ষ থেকে যৌন উত্তেজক ঔষধ এবং কনডম ও নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে। এ থেকে ধারনা করা হচ্ছে যৌন উত্তেজক ঔষধ সেবন করে কিশোরীকে ধর্ষণ করা হয়েছে।

জিজ্ঞাসাবাদে আটক হোটেল কর্মচারী রোনাল্ড এবং খাইরুল জানান, এই হোটেলে দীর্ঘ দিন থেকেই দেহ ব্যবসাসহ বিভিন্ন অনৈতিক কাজ চলতো। হোটেলের মালিক শিবচর পৌর মেয়র আওলাদ খান ও স্থানীয় আওয়ামীলীগের একাধিক নেতা।

আটক রুবেল পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, কয়েক মাস আগে কিশোরীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক হয় রুবেলের। এই সম্পর্কে জের ধরেই স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে হোটেলে কক্ষ ভাড়া নেয় রুবেল। পরে রুবেল কিশোরীর সাথে শারিরিক সম্পর্ক করে।

এসময় কিশোরী রক্তাক্ত হয়ে অসুস্থ হলে কিশোরীকে ফেলে পালিয়ে যায় রুবেল। নিহতের স্বজনদের দাবী, এরপরে হোটেলের কর্মচারীরা কিশোরীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে হত্যা করে।

নিহত স্কুল ছাত্রীর মা ডলি বেগম বলেন, আমার মেয়েকে হোটেলে খাওয়ার কথা বলে ফুসলিয়ে নিয়ে তিনজনের গণধর্ষণ শেষে হত্যা করেছে। একটি প্রভাবশালী মহল বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে। আমি এর বিচার চাই।

উল্লেখ্য, শিবচরের পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন মালিকানাধীন উৎসব একাত্তর হোটেলে কক্ষ ভাড়া নিয়ে ইন্নি আক্তার নামে এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে রুবেল। পরে একই হোটেলের ম্যানেজার রোনাল্ড এবং হোটেল বয় খাইরুলও কিশোরীকে ধর্ষণ করে।

পরে স্থানীয়রা বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শিবচরের রুবেল খান এবং হোটেলের কর্মচারী রোনাল্ড এবং খায়রুলকে আটক করে করে।

দেখা হয়েছে: 22
সর্বাধিক পঠিত
ফেইচবুকে আমরা

  • উপদেষ্টা সম্পাদকঃ আফজাল হোসেন হিমেল মোবাইল ০১৬১১-৫১৫৩২০
  • সম্পাদকঃ আরিফ আহমেদ
  • ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ ফয়সাল হাওলাদার মোবাইল ০১৭৩২-৩৭৯৯৮২
  • সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী মোবাইল ০১৯১৬-৯১৭৫৬৪
  • প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি মোবাইল ০১৯১৬-২২৩৩৫৬
  • নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া মোবাইল ০১৭১৮-৯৭১৩৬০
  • অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
  • বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
  • ই-মেইলঃ aporadhbartamofosal@gmail.com
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।