|

পিতার উপর অভিমানে ট্রেনের সামনে ঝাপ দিয়ে পা হারালো স্কুল ছাত্রী

প্রকাশিতঃ ১১:৪০ অপরাহ্ন | জানুয়ারী ০৩, ২০১৮

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরের পিতার উপর অভিমানে করে পিয়ালী নামে এক স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যার উদ্যেশ্যে ট্রেনের সামনে লাফিয়ে পড়ে মারাত্মক আহত হয়েছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী তার একটি পা হারিয়েছে। আহত পিয়ালী কোটচাঁদপুর বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী।

প্রত্যাক্ষদর্শি ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, কোটচাঁদপুর উপজেলার কাগমারী গ্রামের কেশব হালদারের কন্যা পিয়ালী হালদার (১৫) বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে খুলনা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেন কোটচাঁদপুর ষ্টেশনে ঢোকার আগে পিয়ালী হালদার স্কুলের ড্রেসপরা অবস্থায় ট্রেনের সামনে ঝাপিয়ে পড়ে।

এ সময় পিয়ালী’র বাম পায়ের পাতা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়, সেই সাথে পাশে ছিটকিয়ে পড়ে মুখে ক্ষত সৃষ্টি হয়ে মারাত্মক আহত হয়। সাথে সাথে ঘটনাস্থলের লোকজন তাকে কোটচাঁদপুর উপজেলা হাসপাতালের জরুরী বিভাগে আনেন। এখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে যশোহর মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এব্যাপারে ডিউটিরত ডাঃ ফারাহানা শারমিন অপরাধ বার্তাকে বলেন, মেয়েটির পা কাটা ছাড়াও মুখে ও মাথায় আঘাত লেগেছে। যে কারণে দ্রুত তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেফার্ড করা হয়েছে। জানা গেছে, প্রবাসী পিতা কেশব হালদার গত ১ মাস আগে দেশে আসেন। কিন্তু পিতা বিদেশ থেকে দীর্ঘ দিন পর এলেও পরিবারের কারোর জন্য কিছু না এনে খালী হাতে ফেরেন।

এনিয়ে পরিবারের মধ্যে অশান্তি বিরাজ করছিলো। বুধবার সকালে একই বিষয় নিয়ে পিতা মাতার ঝগড়া বাঁধে এক পর্যয়ে পিয়ালী স্কুলের যাওয়ার নাম করে নিজের বাইসাইকেল যোগে ট্রেন ষ্টেশনে এসে ট্রেনের সামনে ঝাপিয়ে পড়ে।

দেখা হয়েছে: 49
সর্বাধিক পঠিত
ফেইচবুকে আমরা

  • উপদেষ্টা সম্পাদকঃ আফজাল হোসেন হিমেল মোবাইল ০১৬১১-৫১৫৩২০
  • সম্পাদকঃ আরিফ আহমেদ
  • সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী মোবাইল ০১৯১৬-৯১৭৫৬৪
  • প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি মোবাইল ০১৯১৬-২২৩৩৫৬
  • নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া মোবাইল ০১৭১৮-৯৭১৩৬০
  • অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
  • বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
  • ই-মেইলঃ aporadhbartamofosal@gmail.com
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।