|

তানোরে আদিবাসী শিশু মাহাতির জীবনের মুল্য ১টি গরু

প্রকাশিতঃ ৮:৩৯ অপরাহ্ন | জানুয়ারী ০৩, ২০১৮

নাজিম হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি:
দেখতে দেখতে আমাদের মাঝ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে আরেক বছর । এবছরের নভেম্বর মাসের ২য় সপ্তাহে উপজেলা জুড়ে অন্যতম আলোচনার বিষয়ছিল টয়লেটের জরাজীর্ণ হাউসে বালি রাখার কারনে আদিবাসীর দুই শিশু পড়ে গিয়ে মাহাতি নামের এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা । শিশুটির জীবনের মুল্যের দাম ধরা হয়েছে একটি গরু । তাও আবার বাকি ।

মাহাতির পরিবার আইনগত ব্যবস্থা নিতে চাইলে নানা প্রকার হুমকি দিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নিতে দেননি উপজেলা যুবলীগ সভাপতি কলমা ইউপির চেয়ারম্যান লুতফর হায়দার রশিদ ময়না ও ঠিকাদার লিটন । মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে সবকিছু ধামাচাপা দেয়া হয়। ঘটনাটি ঘটে চেয়ারম্যান ময়নার নিজ এলাকা চকরহমতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের টয়লেট হাউজে । শিশু মাহাতির এমন মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা আদিবাসী সম্প্রদয় থেকে শুরু করে উপজেলা বাসিকে নাড়িয়ে তুললেও কোন ধরনের ব্যবস্থা নিতে দেননি ক্ষমতাসীন দলের এযুব নেতা । ফলে চেয়ারম্যান ময়নার এমন একগুয়েমী কান্ডে ফুসে উঠে আদিবাসী পল্লীর জনসাধারন। ফলে ঘটনাটি নিয়ে আদিবাসী পল্লীর লোকজনের মাঝে বিরাজ করে চরম অসন্তোষ ।

জানা গেছে চলতি বছরের গত ১১নভেম্বর শনিবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার কলমা ইউপির বনগাঁচকরহমত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেনীতে পড়তেন আদিবাসী শিশু মাহতি । একই সিমানায় রয়েছে বনগাঁ উচ্চ বিদ্যালয়। বিদ্যালয়ের উত্তর সাইডে ছিল জরাজীর্ণ বাথরুমের হাউজ । হাউজটি দীর্ঘ দিন ধরে টিন কাটা দিয়ে ঢাকা ছিল । বনগাঁ স্কুল থেকে চৌরখর পর্যন্ত পাকা রাস্তার কাজ শুরু হয়। কাজের জন্য রাস্তা ও বাথরুমের হাউজে ফেলা হয়েছিল একট্রাক মত বালি।

শনিবার স্কুল ছুটির পর আদিবাসী পল্লীর শিশু শ্রেনীর শিক্ষার্থী মাহতি , মিঠু ও সরেন হাসদা রাস্তা দিয়ে বাড়ী যাচ্ছিল । এসময় বাথরুমের জরাজীর্ণ হাউজের কাছে যাওয়া মাত্রই বিপরীত দিকে ট্রাক আটকানো ছিল । তিন শিশু বাধ্য হয়ে হাউজের উপরে রাখা বালির উপর লাফ দিয়ে রাস্তা পার হবার চেষ্টা করেন। কিন্তু মাহতি আর মিঠু হাউজের মধ্যে পড়ে যান । তাদের পড়া দেখে সাথে থাকা সরেন হাসদা চিৎকার দেয়া শুরু করেন ।

তার চিৎকারে স্কুলের শিক্ষক ও আদিবাসী পল্লীর লোকজনরা ছুটে এসে হাউজের উপরে থাকা বালু খনন শুরু করলে মিঠুর চুল দেখতে পেয়ে তাকে টেনে তুলেন। তারও নিচে পড়ে থাকে মাহতি । তাকে উত্তোলনের পর দেখে মাহতি আর বেচে নেই । ঠিকাদার লিটন জানান আমি সাইডে ছিলাম না । আসলে এভাবেই তার মৃত্যু লিখা আছে। এটা একটি দুর্ঘটনা চেয়ারম্যান ময়না বলেছেন তাদেরকে একটি গরু কিনে দিতে হবে । তাঁরা গরু পালন করতে খুব পছন্দ করেন ।

তানোরে আদিবাসী শিশু মাহাতির জীবনের মুল্য ১টি গরু -Aporadh-Barta

তানোরে আদিবাসী শিশু মাহাতির জীবনের মুল্য ১টি গরু -Aporadh-Barta

কলমা ইউপির চেয়ারম্যান উপজেলা যুবলীগ সভাপতি লুতফর হায়দার রশিদ ময়না জানান একটি দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে আদিবাসী শিশুর । এখানে কারো দোষ নেই । ঠিকাদারকে বলেছি রাস্তার কাজ শেষ হলে একটি গরু কিনে দিতে হবে । আদিবাসী পল্লীর একাধিক বাসিন্দা জানান মাহতি আদিবাসী পরিবারের শিশু এজন্য তার অকাল মৃত্যু হলেও কোন বিচার নেই। এঘটনা যদি কোন মুসলিম পরিবারে ঘটত তাহলে ঠিকই বিচার হত।

একাধিক বার ইউপি ভবনে ঘটনাটি নিয়ে বসেছে চেয়ারম্যান যাতে কোন ধরনের মামলা না হয়। একজন শিশুর জীবনের পরিবর্তে দেয়া হচ্ছে গরু । আমাদেরকে গরুই ভাবা হয়। তানা হলে জীবনের পরিবর্তে গরু কেন দিবে। আমরা যে এদেশে অবহেলিত এটা তার অন্যতম প্রমান। ওসি রেজাউল ইসলাম অপরাধ বার্তাকে জানান মাহতি মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবার কোন ধরনের মামলা না করায় ইউডি মামলা করা হয়।

প্রসঙ্গত গত বছরের নভেম্বর মাসের ২য় সপ্তাহে উপজেলার কলমা ইউপি এলাকার বনগাঁ স্কুলের বাথরুমের হাউজে পড়ে মর্মান্তিক মৃত্যু হয় শিশু মাহতির । সে সল্লাবাড়ী আদিবাসী পল্লীর বুধুরায়ের মেয়ে। ঘটনাটি ২০১৭ সালের টক অব দ্যা তানোরে পরিণত হয়ে ব্যাপক আলোচনায় চলে আসে।

দেখা হয়েছে: 55
সর্বাধিক পঠিত
ফেইচবুকে আমরা

  • উপদেষ্টা সম্পাদকঃ আফজাল হোসেন হিমেল মোবাইল ০১৬১১-৫১৫৩২০
  • সম্পাদকঃ আরিফ আহমেদ
  • সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী মোবাইল ০১৯১৬-৯১৭৫৬৪
  • প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি মোবাইল ০১৯১৬-২২৩৩৫৬
  • নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া মোবাইল ০১৭১৮-৯৭১৩৬০
  • অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
  • বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
  • ই-মেইলঃ aporadhbartamofosal@gmail.com
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।